দ্য সিম্পসন কার্টুন এবং ভবিষ্যৎ কিছু বর্ণনা

দ্য সিম্পসন কার্টুন এবং ভবিষ্যৎ কিছু বর্ণনা
দ্য সিম্পসন কার্টুন এবং ভবিষ্যৎ কিছু বর্ণনা

দ্য সিম্পসন কার্টুন –  আমাদের ভবিষৎ সময়ে কি হবে তা যানার জন্য একটি বার হলেও হয়তো আমতা ভেবেছিলাম ঠিক যেমনটা একটি কার্টুন সিরিজ প্রায় গত ৩০ বছর ধরে দর্শকদের দেখিয়ে আসছে ।

দ্য সিম্পসন কার্টুন হচ্ছে মার্কিন এনিমেশন সিরিজ। ১৯৮৯ সাল থেকে প্রচার করা এই কার্টুনটির এখন পর্যন্ত প্রায় ৩১ টি সিরিজ প্রচার করেছে। এই সিম্পসন কার্টুনের প্রধান চরিত্র গুল হচ্ছে  যথাক্রমে হোমার সিম্পসন, মার্জ সিম্পসন, বার্ট সিম্পসন, লিসা সিম্পসন, ম্যাগী সিম্পসন,  সহ আরো অন্যান্য।

 মূলৎ এই কার্টুননের মাধ্যমে মানুষের মানসিক ও বাস্তবিক এছাড়াও ভবিষ্যৎ অবস্থা প্রচার করা হয়ে থাকে।বিশেষ করে মার্কিন সংস্কৃতি এবং সামগ্রিকভাবে সমাজের বিভিন্ন দিকের নানা প্রশঙ্গকে প্রচার করা হয়ে থাকে এই কার্টুনের মাধ্যমে ।

অবশ্য এই কার্টুনটি বিখ্যাত হবার কারন হচ্ছে এর ভবিষ্যৎ বানি। এই সিম্পসন কার্টুনের মধ্যে এমন কিছু প্রেডিকশন দেখানো হয় কিংবা এমন কিছু অবস্থার বর্ননা করা হয় যাকিনা পরবর্তিতে বাস্তবেই অনেকটাই মিলে যায়। যে কারনেই এই কার্টুনটি সকলের কাছে এখন পর্যন্ত এতটা জনপ্রিয়।

দ্য সিম্পসন কার্টুন এবং ভবিষ্যৎ কিছু বর্ণনা
ছবিতে দ্য সিম্পসন কার্টুন এর প্রধান ক্যারেক্টার গুল

 দ্য সিম্পসন কার্টুনের এমন কিছু প্রেডিকশন হচ্ছে  –

ইবোলা এবং করোনা ভাইরাস প্রেডিকশন –

১৯৯৭ সালে  সিম্পসন কার্টুনের সিজন নাইনের তিন নম্বর এপিসডে দেখা যায় বার্ট সিম্পসন একটি বিছানায় শুয়ে আছে এবং তার মা মার্জ সিম্পসন তাকে একটি বই পরে শুনাচ্ছে। অবাক করার বিষয় হচ্ছে সেই বইয়ের কভারে লেখা দেখানো হয় কিউরিয়াস জর্জ এন্ড ইবোলা ভাইরাস নামে একটি লেখা।

এই কিউরিয়াস জর্জ বাস্তবেই একটি কার্টুন ক্যারেক্টার। যার মধ্যে একটি বানরের নাম রাখা হয় কিউরিয়াস জর্জএছাড়াও ইবোলার ব্যাপারটি তো আমরা সকলেই যানি। যাকিনা মানুষের শরীরের বানর এবং বাদুরের মাধ্যমে এসে অনেক মহামারী আকারে রুপ নিয়েছিল।

বিশেষ করে ২০১৩ সাল থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত এই ভাইরাসটি সমগ্র আফ্রিকাতে একটি অভিশাপ হিসেবে দেখা দিয়েছিল।

অন্য দিকে করোনা ভাইরাসের ক্ষেত্রে ১৯৯৩ সালের এক এপিসোডে সিম্পসন কার্টুনে দেখানো হয় কিছুটা চাইনিজ আকৃতির দুজন লোক একটি কার্টনে পার্সেলের মধ্যে নিস্বাসের মাধ্যমে ভাইরাস আমেরিকাতে পাঠিয়ে দেয়। এর পরে সেই পার্সেল গুল সেখান কার যারাই খুলে তারাই সেই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়।

অবশ্য এ ক্ষেত্রে সেই পর্বতে উক্ত ভাইরাসের নাম দেয়া হয়েছিল ওসাকা ফ্লু।

প্রেসিডেন্ট ট্রাম এবং এক্সেলেটর  –

২০০০ সালে প্রাকশিত সিম্পসনের একটি পর্বে দেখানো হয় আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হয়েছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। এছাড়াও সেই পর্বে আমেরিকার একটি ম্যাপে দেখানো হয়েছিল ট্রাম ঠিক কোন কোন যায়গা থেকে তার ইলেকশনে জয় লাভ করবে।

অদ্ভুত বিষয় হচ্ছে প্রায় ১৬ বছর পরে ঠিকি এই ডোলান্ড ট্রাম্প আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হয় এবং তিনি যে যে এলাকা থেকে জয়লাভ করে ১৬ বছর পরে তা পূর্বের দেখানো ম্যাপের সাথে প্রায় ৯০ ভাগের বেশি মিলে যায়।

এ ছাড়াও সেই এপিসোডে দেখানো হয় ট্রাম্প  প্লেসিডেন্ট হবার পরে একটি এক্সেলেটর দিয়ে নামছেন যেখানে তিনি তার দুই হাতের কিছুটা অঙ্গ ভঙ্গি করে দেখান যাকিনা বাস্তবেই অনেকটা হুবহু ডোনাল্ড ট্রাম্প করে দেখিয়েছিলেন।

এর পরে সেখানে আরেকটু লক্ষ্যে করলে দেখা যায় সেই কার্টুনের মধ্যে একজন মহিলার হাতে থাকা প্লাকার্ড তার হাত থেকে পরে যায়।

অদ্ভুত বিষয় হচ্ছে বাস্তবেও অনেকটা একই ভাবে সেই যায়গায় দাড়িয়ে থাকা এক মহিলার হাত থেকে একটি প্লাকার্ড পরে গিয়েছিল।

নাইন এলিভেন এটাক – 

সিম্পসন কার্টুনে লাইন এলিভেনের হামলার প্রেডিকশন দেয়া হয়েছিল। ১৯৯৭ সালের একটি এপিসোডে লিসা সিম্পসন তার ভাই বার্ট সিম্পসনকে। মাত্র ৯ ডলারের বিনিময়ে নিউওয়ার্কে যাওয়ার একটি বিজ্ঞাপন দেখায় ।

যেখানে স্পষ্ট ভাবে সেই নয়ের পাশে টুইন টাওরের গঠন অর্থাৎ যাকে এলিভেন বানানো হয়। এবং তার উপরে বড় করে নিউওয়ার্ক লেখা দেখানো হয়। আর আমরা জানি নাইন এলিভেনেই নিউওয়ার্কের এই টুইন টাওয়ার ধংশ করা হয়েছিল।

ফল্ট ভোটিং মেশিন –

২০০৮ সালের সিম্পসন কার্টুনের একটি এপিসোডে দেখানো হয় হোমার সিম্পসন এক নির্বাচনে বারাক ওবামাকে ভোট দিচ্ছেন কিন্তু সেই ভোর্ট উক্ত উলেক্ট্রনিক ডিভাইস থেকে কাউন্ট করা হয় জন মেক্কেনের জন্য।

মজার বিষয় হচ্ছে ঠিক একই ভাবে ২০১২ সালে আমেরিকার নির্বাচনের সময়ে একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছিল যেখানে দেখানো হয় একটি ভোটিং মেশিন থেকে বারাক ওবামাকে ভোট দেবার পরেও সেই মেশিনটি ভোট কাউন্ট করছে জন মেক্কেনের জন্য।

গোইং গ্লোব –

২০০২ সালের সিম্পসন কার্টুনের একটি এপিসোডে দেখানো হয় ডোলান্ড ট্রাম্প সৌদির বাদশা কিং আব্দুল আজিজ এবং মিশরের প্রেসিডেন্ট একটি আলোকিত বলের উপরে হাত রাখেন।

যাকিনা ঠিক ১৬ বছরের পরে হুবুহ দেখতে পাওয়া যায়। ২০১৮ সালে বিশ্ব নেতাদের এক সম্পেলনে ডোনাল্ড ট্রাম্প সৌদির বাদশা কিং আব্দুল আজিজ এবং মিশরের প্রেসিডেন্ট একই ভঙ্গিতে নিজ নিজ স্থানে  দাড়িয়ে ছবি তুলে । মজার বিষয় হচ্ছে সেই ছবিতে আমাদের বাংলাদেশের বর্তমান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকেও দেখতে পাওয়া যায়।

এবার চলুন ভবিষৎ প্রেডিকশন সম্পর্কে দ্য সিম্পসন কার্টুনে দেখানো কিছু ফুটেজকে দেখে নেয়া যাক।

ইভাঙ্কা ট্রাম্প –

২০১৬ সালে এক এপিসোডে দেখানো হয় হোমার সিম্পসন ইভানকা ট্রাম্পেকে প্রেসিডেন্ট করার জন্য তার নাম লেখা ব্যাচ নিয়ে ২০২৮ সালে ঘুরে বেরাচ্ছেন ।

মজার বিষয় হচ্ছে ডোলান্ড ট্রাম্পের মেয়ে এই ইভানকা ট্ট্রাম্প কিন্তু ইতি মধ্যে ঘোষনা দিয়েছেন তিনি রাজনিতিতে যরাচ্ছেন। আর তার প্রেসিডেন্ট হবার বিষয়টি? সেটি দেখার জন্য না হয় ২০২৮ পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

ওয়ার্ক টুগেদার –

গত কয়েক দশক ধরে আমরা দেখতে পাচ্ছি বিভিন্ন বড় বড় কম্পানি গুল একে অন্যের সাথে তাদের কম্পানির শেয়ার করার মাধ্যমে  মিলে মিশে কাজ কর করছেন। কোথাও আবার বড় কোন কম্পানি একাই অনেক ছোট কম্পানির শেয়ার কিনে নিচ্ছেন ঠিক যেমনটা আমরা এরি মধ্যে দেখেছি  – ফক্স এবং ডিজনির এক সাথে কাজ করা । এবিচি এছাড়াও ইএসপিএন চ্যানেলের এক সাথে সম্প্রচার।

দ্যা সিম্পসন কার্টুনে কিন্তু এই বিষয়টি আগে থেকেই দেখানো হয়েছে সিম্পসনের একটি পর্বে দেখানো হয় একজন উপস্থাপক সংবাদ পড়ছেন যার পেছনে ছি এন এন বি সি বি এস লেখা রয়েছে

আপনি যদি একটু খেয়াল করেন তাহলে বুঝবেন আমাদের বিশ্বের বর্তমানে জনপ্রিয় কিছু নিউজ চ্যানেল গুলোর মধ্যে অন্য তম  চ্যানেল হচ্ছে সি এন এন এন বি সি এবং সি বি এস।

যদিও এখন পর্যন্ত এই চ্যানেলে  গুল এক সাথে কাজ করেনি তবে ভবিষত্যে যে করবেনা সে বিষয়ে হয়তোবা আপনাকে কেউ গ্যারান্টি দিতে পারবেনা।

মার্স লিভ –

দ্যা সিম্পসন কার্টুনের এক এপিসোডে দেখানো হয় ২০৫১ সালে অনেকেই মঙ্গল গ্রহে বসবাস করছেন। যার কার্যক্রম ইতিমধ্যে আমরা লক্ষ্য করলে দেখতে পারবো ইলন মাস্ক এবং তার কম্পানি স্পেস এক্সকে লক্ষ করলে।  এই কাজের জন্য ঠিক কতটা তদারকি করছে তারা। সর্বশেষ ইলন মাস্ক এখন পর্যন্ত বলছেন ভবিষত্যে আমরা অবশ্যই মঙ্গলে বসবাস করবো।

উল্লেখ্য  অনেকেই বলছেন এই সিম্পসন কার্টুন আসলে একটি কাকতালিয় ব্যাপার আবার অনেকেই বলছেন এই কার্টুন নির্মাতারা হচ্ছেনন টাইম ট্রাভেলার অথবা ইলিমিউনাটির সদস্য।

এ সম্পর্কিত আমাদের ভিডিও দেখুন –

আরো পড়ুন –

লিওনার্দো দা ভিঞ্চি – ইতিহাসে অদ্ভুত এক মানব
শেয়ার করুন -

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন