মোনালিসার ছবি নিয়ে কেন এত রহস্য !

মোনালিসার ছবি নিয়ে কেন এত রহস্য !
মোনালিসার ছবি

মোনালিসার ছবিটিকে ঘিরে মানুষের কৌতুহলের শেষ নেই। বিভিন্ন সময় বিজ্ঞানিরা গবেষণার মাধ্যমে এই ছবিটির বিখ্যাত হবার পেছনে বিভিন্ন যুক্তি উপস্থাপন করেছেন। এই বিষয় গুলকে অনেক ক্ষেত্রে আপনি একমত পোষণ করলেও কিছু বিষয় হয়তো গুজব বলে উড়িয়ে দিতে পারেন । 

  মোনালিসার ইতালিয়ান অর্থ হচ্ছে মাই ল্যাডি বা আমার প্রিয়তম। বিখ্যাত চিত্র  শিল্পী লিওনার্দো দা ভিঞ্চি ১৬ শতকে এই ছবিটি অঙ্কন করেন। মোনালিসার ছবিটিকে আকার জন্য লিওনার্দো দা ভিঞ্চি সময় নিয়ে ছিলেন তিন বছর (১৫০৩-১৫০৬)। কেউ মনে করেন মোনালিসা লিওনার্দো দা ভিঞ্চির মাতা ছিলেন । আবার কেউ মনে করেন মোনালিসা ছিলেন ভিঞ্চির গার্লফ্রেন্ড, কেউ কেউ আবার এটাও বিশ্বাস করের মোনালিসা নামের ছবিটি ছিল লিওনার্দো দা ভিঞ্চিরি এক অন্য রুপ। কিন্তু প্রকৃত পক্ষে কেই এই মোনালিসা তা এখন পর্যন্ত কেউ বলতে পারেনি।

  দির্ঘ ৩ বছর ধরে পরিশ্রম দেয়া এই  ছবিটিকে  তিনি  সবসময় তার কাছে রাখতেন এবং সকলকে বলতেন

“এই ছবিটি হচ্ছে আমার জীবনের সবচাইতে সফল কর্ম”

মজার ব্যেপার হচ্ছে দা ভিঞ্চি এই ছবিটি একে ছিলেন একটি কাঠের উপরে। বর্তমানে এই ছবিটিকে রাখা হয়েছে  ফ্রান্সের ল্যুভর জাদুঘরের । শুধু মাত্র এই ছবিটির জন্য উক্ত জাদুঘরে করা হয়েছে একটি আলাদা কক্ষ। যেখানকার তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রন যোগ্য সহ এই ছবির সামনা সামনি রয়েছে বিশাল একটি বুলেট প্রুফ গ্লাস। শুধু মাত্র এই ছবিটিকে দেখার জন্য শতকরা ৮০% মানুষ যান সেই জাদুঘরটিকে। বলাহয়েছে এই কক্ষটি নির্মান করার জন্য ৭ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ব্যায় করা হয়েছিল।

কেন মোনালিসার ছবিটি বিখ্যাত – 

মোনালিসার এই ছবিটি বিখ্যাত হবার পেছনে বেশ কয়েকটি কারন রয়েছে তার মধ্যে উল্লেখ্য যোগ্য হচ্ছে –

মোনালিসার ছবি নিয়ে কেন এত রহস্য !
মোনালিসার ছবি

১ ছবিটির ভেতরে মোনালিসার চোঁখ

২ মোনালিসার হাঁসি এবং তার ঠোট

৩ এই ছবির মাধ্যমে কিছু গোপন বার্তা 

আপনি মোনালিসার এই ছবিকে যে দিক থেকেই দেখেননা কেন ছবিটির দিকে তাকালে দেখবেন মোনালিসা অপলোক দৃষ্টিতে আপনার দিকেই তাকিয়ে আছে । দূর থেকে আপনি যদি ছবিটির দিকে লখ্য করেন তাহলে দেখবেন ছবিতে থাকা মোনালিসা হাসছে। কিন্তু আপনি যতই সামনে যাবেন এবং একটি পর্যায় তার ঠোটের দিকে তাকাবেন দেখবেন সেই হাঁসি কোথায় যেন বিলীন হয়ে গিয়েছে।

মোনালিসার ছবি নিয়ে কেন এত রহস্য !
মোনালিসার ছবির রহস্য !

 

মোনালিসার ডান হাতের পাশে কিছু গোপন বার্তা আছে বলে যানানো হয়। যখন আলট্রা লাইট পদ্ধতিতে এই ছবিটিকে দেখা হচ্ছিল তখন সেখানে কিছু অক্ষর পাওয়া যায়। এই অক্ষর গুলকে পরস্পর সাজালে যা পাওয়া যায় সেটি হচ্ছে –

LA RISPOSTA SI TROVA QUI 

এটি হচ্ছে ইতালিয়ান একটি শব্দ এর বাংলা অর্থ হচ্ছে -> উত্তর এখানেই দেয়া আছে।

মোনালিসার ছবি নিয়ে কেন এত রহস্য !
মোনালিসার ছবিতে এলিয়েন !

যদিও আজ পর্যন্ত ঠিক তেমন কিছুই আবিস্কার করা যায়নি এই ছবিটি থেকে, কিন্তু একটি প্যারানরমাল ওয়েবসাইট কুশওয়েব দাবি করেছিল এই ছবিটির মধ্যে একটি এলিয়েন লুকিয়ে আছে । এর ব্যাখ্যা হিসেবে তারা তাবি করেছেন আপনি যদি এই ছবিটিকে বাপদিক থেকে আয়নার সামনে তুলে ধরেন তাহলে একটি এলিয়েনের ছবি ভেসে উঠবে।

মোনালিসার ছবি নিয়ে বিজ্ঞানিদের ব্যাখ্যা – 

২০০৫ সালে প্যাস্কেল কটেল নামে  একজন বিজ্ঞানি  ইস্প্রেক্ট্রালাইট টেকনোলোজি হাই ইন্সেন্সিটি সাইট এবং মাল্টি লেন্সের মাধ্যমে এই ছবিটির আলাদা আলাদা ভাবে বেশ কয়েকটি ছবি তুলেন যার পরিপেক্ষিতে তিনি যে তথ্য দিয়েছিলেন তা অনেকটাই অবাক করার মত ছিল।প্যাস্কেল বলেছিলেন দা ভিঞ্চি যে রঙ দিয়ে এই চিত্রটি একে ছিলেন তার স্তর ছিল ৪০ মাইক্রো মিটার। যার মানে হচ্ছে সেই রঙটি ছিল আমাদের মাথার চুলের থেকেও পাতলা। এছাড়াও এই চিত্রটির মধ্যে আরো তিনটি চিত্র লুকিয়ে আছে। যা সেই ১৬ শতকের সময় ভাবাটাও ছিল অকল্পনিয় একটি ব্যাপার। আর একারনেই হয়তোবা আমরা মোনালিসার ছবিটিকে বিভিন্ন যায়গা থেকে ভিন্ন রুপে দেখতে পাই।

 

আরো পড়ুন –

জাতিসংঘের ইতিহাস ও বর্তমান এবং বাংলাদেশে এর অবস্থান – 

 

শেয়ার করুন -

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন