আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব

আওয়ামী লীগ থেকে বহিষ্কৃত হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব
হেলেনা জাহাঙ্গীর

আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী ও ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করেছে র‌্যাব। ৩০ জুলাই রাত সোয়া ১২টার দিকে তাঁকে আটক করে র‍্যাব সদর দপ্তরে নিয়ে যাওয়া হয়।

র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার পরিচালক কমান্ডার আল মঈন সংবাদ প্রতিবেদককে এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, হেলেনা জাহাঙ্গীরকে গ্রেফতার করা হয়েছে এবং তার বাসভবন থেকে কয়েক বোতল মদ, বিভিন্ন ধরনের মাদকদ্রব্য, বন্য প্রাণীর চামড়া এবং ওয়াকিটকি সেট উদ্ধার করা হয়েছে। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তাকে গ্রেফতারের আগে র‌্যাবের একটি দল রাত ৮ টা নাগাদ রাজধানীর গুলশান ২ এর ৩৬ নম্বর সড়কে হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসায় অভিযান চালানো শুরু করে।

র‍্যাবের অতিরিক্ত মহাপরিচালক কর্ণেল কে এম আজাদ বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাসা থেকে আটক করে তাঁকে রাত সোয়া ১২টার দিকে র‍্যাব সদর দপ্তরে নেওয়া হয়। কিছু বিষয় সম্পর্কে বিস্তারিত তথ্য জানতে এবং নিশ্চিত হতে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

আওয়ামী লীগের সঙ্গে হেলেনা জাহাঙ্গীরের সম্পর্ক:

আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য ছিলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। গত রোববার তাকে সদস্যপদ থেকে কে অব্যাহতি দিয়ে আনুষ্ঠানিক সংবাদ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে উপকমিটির সদস্যসচিব এবং আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক সম্পাদক মেহের আফরোজ সাক্ষর প্রদান করেন।

যাতে বলা হয়, হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগ এর মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্য হিসেবে ছিলেন। কিন্তু সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রচারিত তার বিভিন্ন কর্মকাণ্ড সংগঠনের নীতি বহির্ভূত হওয়ার দরুণ আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ হতে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তি দেওয়ার পূর্বে গত শনিবার রাতে মেহের আফরোজ সংবাদ প্রতিবেদককে বলেছিলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীর উপকমিটির সঙ্গে সমন্বয় করে তার কার্যক্রম চালিয়ে যেতে পারছেন না। তাঁর কিছু কিছু কাজ সংগঠনের জন্য বিব্রতজনক।

এ কারণে তাকে মহিলাবিষয়ক উপকমিটির সদস্যপদ থেকে অব্যাহতি দেওয়ার নীতিগত সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। শীঘ্রই আনুষ্ঠানিকভাবে তা সকলকে জানানো হবে।

জয়যাত্রা টেলিভিশনের প্রতিষ্ঠাতা এবং সিইও হেলেনা জাহাঙ্গীর আওয়ামী লীগের মহিলাবিষয়ক কেন্দ্রীয় উপকমিটির সদস্যপদ গ্রহণ করেছিলেন গত ১৭ জানুয়ারি।

এর পূর্বে ২০২০ সালের ডিসেম্বর মাসের দিকে তিনি কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যপদ গ্রহণ করেন।

আরো পড়ুন:
দূর্নীতি প্রকাশকারী সাংবাদিক কারাগারে; কে এই সাংবাদিক রোজিনা? 
ভয়াবহ দাবানলে পুড়ছে ‍তুর্কি বনাঞ্চল

আবদুল মতিন খসরু মৃত্যুবরণ করলে ওই আসনে মনোনয়নের উদ্দেশ্যে দলীয় ফরম সংগ্রহ করেছিলেন। কিন্তু মনোনয়ন পাননি।

যেকারণে আওয়ামী লীগ বহিষ্কৃত হন

সম্প্রতি জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে নেতা বানানোর ঘোষণা দিয়ে ছবি পোস্ট করে আলোচনা-সমালোচনার জন্ম দেন হেলেনা জাহাঙ্গীর।

বাংলাদেশ আওয়ামী চাকরিজীবী লীগ নামক এক সংগঠনের ব্যানারে সংগঠনটির জেলা, উপজেলা এবং বিদেশি শাখায় সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক নিয়োগ দেওয়া হবে বলে ঘোষণা দেওয়া হয়। যা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ভাইরাল হয়।

কথিত এই সংগঠনটির কেন্দ্রীয় সভাপতি হিসেবে হেলেনা জাহাঙ্গীর আর সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মাহবুব মনির এর নাম উল্লেখ করা হয়।

subscribe to our youtube channel 2

শেয়ার করুন -

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন
আপনার নাম লিখুন